জীবনে ভালোভাবে বেচে থাকার জন্য কি দরকার হয়?

একজন জিজ্ঞেস করলো জীবনে ভালোভাবে বেচে থাকার জন্য কি দরকার হয়?

প্রশ্নটা অনেক জটিল মনেহলেও অনেক সহজ। জীবনকে আমরা কখনই জীবনের মত ভাবতে শিখিনা। জীবনকে আমরা সিনেমার মত মনেকরি বলে এসব প্রশ্নের উত্তর খুজে ফিরি। অবশ্য উত্তর দিয়েছিলাম একটি সুস্থ্য মন দরকার, সুস্থ্য মনকে সুস্থ্য রাখতে পারে এমন একটি মানসিকতা দরকার, আর জীবনকে বুঝে চলার অভ্যস থাকা দরকার।

আপনি যখন জীবনে অন্যর মত হওয়ার চেষ্টা করবেন তখনি সমস্য শুরু দিবেন। প্রত্যেকটি মানুষের জীবন এক একটি গল্প। এই গল্পগুলো কখনই এক হয় না। কারন গল্পের উপকরন গুলো এক থাকেনা। কিন্তু আমরা বরাবরই মিলাতে চাই। তুলনা করতে চাই, অন্যের মত পেতে চাই, হতে চাই। এসবে নিজের মধ্যে মনস্তাত্তিক দ্বন্দ্ব তৈরী করে ফলশ্রুতিতে আমরা মন নামক একটি সুন্দর নদীর স্বাভাবিক গতি পথে বাধার তৈরী করি ফলে মন অশান্ত হয়ে উঠে, ঝড় উঠে বৃষ্টি ঝড়ে।

ভালো থাকার সবচেয়ে ভালো উপায় হলো নিজের মত করে নিজের ভূবনটাকে নিয়ে পথ চলা, নিজের মন নামক নদীকে নিজের বিবেক নামক শাসকের অধিনে নিয়ে গিয়ে মন নামক নদীর গতিকে স্বাভাবিক রাখার ব্যবস্থা করা।

আল্লাহ রাব্বুল আলামিন সূখকে মানুষের জন্য সৃষ্ট করেছেন। আল্লাহ চান সবাই সূখি হোক। ভালো থাকতে সবাই পারে না। ভালোথাকতে কিভাবে হয় সেটি রেল লাইনের ধারে পড়ে থাকা পুড়াতন কোন বগিতে বসবাসরত শিশুদের মুখের হাসির দিকে তাকালে উপলব্ধি করা যায় কিংবা ঢাকায় পথশিশুদের মুখের হাসি কিংবা গ্রাম বাংলার খেটে খাওয়া মানুষগুলো মুখের হাসির দিকে তাকালেই উপলব্ধি করা যায় আসলে সূখ কিসে পাওয়া, ভালোথাকা কারে কয়। যারা এই হাসি গুলোর মধ্যে সূখ খুজে পায়না তাড়া যত বড়ই হোক না কেন, বাহিরে তাদের ভূড়ি ভূড়ি থাকনা কেন তাদের মনে সূখ বলে কিছু নেই।

যখন আপনি কাজ শেষে রাতের বেলা নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারবেন, সেদিন ভাববেন আপনি ভালো আছেন। যখন দেখবেন চিন্তায় আপনার ঘুম আসছেনা তখন জানবেন আপনি এমন কিছু আশা করছেন যা আপনার সাধ্যের বাহিরে কিংবা আপনি তার জন্য নিজেকে তৈরী করেননি।

সুস্থ্য চিন্তা মানুষকে সফল করে তোলে, অসুস্থ্য চিন্তা মানুষকে করে তোলে রোগী। সুস্থ্য চিন্তা মানুষের ঘুম কেড়ে নিয়ে সফলতার পথে এগিয়ে দেয়, অসুস্থ্য চিন্তা বিনিদ্র রজনী পাড় করে আপনার হৃদয়ে ভয়ংকর রোগের বাসা তৈরি করে।

সবশেষে যখন আপনি আপনার মত করে আপনাকে আবিষ্কার করতে পারবেন সেদিন আপনি ভালো থাকার উপায় পেয়ে যাবেন। পৃথিবীর অনেক কিছুই সিনেমার মত। মেকি, ছলনা আর অভিনয়ে ভরপুর এই জীবন। এটাই জীবন মানুষকে ফেরেস্তা ভাবতে গেলে যেমন আপনি অসুখী হবেন, তেমনি জীবনটাকে আপনার মত করে চাইলেও অসুখী হবেন।

যা আছে তাই নিয়ে সুখী থাকুন, নিজের সময়টাকে কাজে দিয়ে নিজের সামর্থ্যর সবটুকু ব্যবহার করে নিজের মত করে সফল হোন এবং সেটাকেই আপনার প্রাপ্য ভাবুন ভালো থাকবেন।

দুনিয়ার সবাই সুখী হোক, ভালো থাকুক!

2 Comments

  1. লেখাটি অসাধারনভাবে সুখী জীবনের সাধারন ফর্মুলাটিকে তুলে ধরেছে। ধন্যবাদ আপনাকে লেখার জন্য। বিশ্বাসীগন যদি আল্লাহর এই কথাটি মনেপ্রানে ধারন করতে পারে, যেখানে আল্লাহ বলেছেন, “What is the life of this world but amusement and play? but verily the Home in the Hereafter,- that is life indeed, if they but knew.”[Quran 29:64] অর্থাৎ পার্থীব জীবন খেলার মত, এটা আসল জীবন নয়, তবে দুনিয়াতে আমরা পরম প্রশান্তি লাভ করতে পারবো, যতই দুঃখ আসুক না কেন।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s