একান্ত ভাবনাগুলি (কবিতা)

লজ্জার বাতিঘরে জন্ম আমার
লাজুকতার চরম পরাকাষ্ঠা বেয়ে….
নিজেকে লুকিয়ে রেখেছি কখনও বা ঘরের কোনে
কখনও বা থেকেছি চুপটি করে
কখনও বা নিরবতা হয়েছে অব্যক্ত কাব্য
রাস্তার ধারের বেড়ে উঠা গুল্ম লতা
হয়েছে আমার চলার পথের সংগী
কিংবা জানালার পাশের আকাশ
হয়েছে আমার একলা ঘরের গল্প বলার সংগী
বন্ধু হয়েও পাইনি কোন বন্ধু
চাপা কান্নার জলে হৃদয় আজ
বিশাল এক সিন্ধু
যার হৃদয়ের মধ্যে অকৃত্রিম প্রেম
সে কখনও কারো বন্ধু হতে পারে না
যেখানে স্বার্থ আর আমিত্বের বসবাস
সেখানে অকৃত্রিম বন্ধুত্বের স্থান হয়
কবিতার লাইনে, নয়ত প্রকৃতির কোন উপমায়

রাত পোহাবার কত দেরি পান্জেরী……

রাত পোহাবার কত দেরি পান্জেরী……

প্রকৃতির সব কিছুই চলে আমন মহিমায়… আমাদের আসা যাওয়ায় তার কোন ই বিচ্যুতি ঘটে না। রাতের আধারে প্রকৃতি কেমন জানি মোহচ্ছন্ন হয়ে ওঠে মৃদ্যু অন্ধকার, মৃদ্যু আলোয় প্রকৃতির বিচিত্র রূপ ধরা পড়ে। ঠিক এমনি বিচিত্র এক একজন মানুষ, মানুষের মন। মানুষের প্রতিযোগিতা আর নিজেদের আমিত্বের প্রচারনায় প্রকৃতি ঠোটে জেগে থাকে এক চিলতে হাসি। মানুষ হিসেবে আমরা কি বা পারি আর কতটুকুই বা পারি , তারপরও আমরা জীবনের কিছু সত্যকে ভূলে সর্বদা ব্যস্ত থাকি অস্থায়ী কিছু তৃপ্তির খোজে….. রাত ২.১০, উপশালা, সুইডেন। 2.10 AM, Uppsala, Sweden, Just before sunrise. 09 June 2014