বইঃ ক্রাইসিস ইন মুসলিম মাইন্ড. (একটি অংশের কাঁটা ছেড়া অনুবাদ)

বইঃ ক্রাইসিস ইন মুসলিম মাইন্ড
মূল লেখকঃ আব্দুল-হামিদ আ: আবু সুলায়মান।

মুসলিমের নৈতিক দ্বায়িত্বঃ
একজন মুসলিম তার ইচ্ছাশক্তি এবং সামর্থ্যর ব্যবহার করে নিজের অস্তিত্বের উদ্দেশ্য বুঝতে পারে, নিজেদের দ্বায়িত্ব যথাযথভাবে পালনে করে জান্নাতে তার অবস্থান নিশ্চিত করে। যদি সে তার ইচ্ছাশক্তি এবং নিজের সামর্থ্যকে নিজের সৃষ্টির উদ্দেশ্যকে পুরনের জন্য ব্যবহার না করে অন্য কোন উদ্দেশ্য ব্যবহার কর‍ে, (যেমনঃ শোষনে, দূর্নীতে ব্যবহার) তাহলে সে তার কর্তব্য পালনে ব্যর্থ হবে, সে তার দ্বায়িত্বের মর্যাদাকে কলুষিত করবে, এবং সে তার নিজের জন্মের উদ্দেশ্য নষ্ট করে ফেলবে। তখন তার অবস্থান হবে জাহান্নামের নিম্ন স্তরে।
কুরআন পাকের বিভিন্ন জায়গায় মানুষের দ্বায়িত-কর্তব্য বলে দিয়েছেন।

“বলুনঃ আমি ও তোমাদের মতই একজন মানুষ, আমার প্রতি প্রত্যাদেশ হয় যে, তোমাদের ইলাহই একমাত্র ইলাহ। অতএব, যে ব্যক্তি তার পালনকর্তার সাক্ষাত কামনা করে, সে যেন, সৎকর্ম সম্পাদন করে এবং তার পালনকর্তার এবাদতে কাউকে শরীক না করে।” সূরা আল কাহফ, ১১০।

“যিনি সৃষ্টি করেছেন মরণ ও জীবন, যাতে তোমাদেরকে পরীক্ষা করেন-কে তোমাদের মধ্যে কর্মে শ্রেষ্ঠ? তিনি পরাক্রমশালী, ক্ষমাময়।” সূরা আল-মূলকঃ ২।

“হে মানব মন্ডলী, পৃথিবীর হালাল ও পবিত্র বস্তু-সামগ্রী ভক্ষন কর। আর শয়তানের পদাঙ্ক অনুসরণ করো না। সে নিঃসন্দেহে তোমাদের প্রকাশ্য শত্রু।” সূরা আল বাকারাঃ ১৬৮।

“আল্লাহ তোমাকে যা দান করেছেন, তদ্বারা পরকালের গৃহ অনুসন্ধান কর, এবং ইহকাল থেকে তোমার অংশ ভূলে যেয়ো না। তুমি অনুগ্রহ কর, যেমন আল্লাহ তোমার প্রতি অনুগ্রহ করেছেন এবং পৃথিবীতে অনর্থ সৃষ্টি করতে প্রয়াসী হয়ো না। নিশ্চয় আল্লাহ অনর্থ সৃষ্টিকারীদেরকে পছন্দ করেন না।” সূরা আল-কাসাস, ৭৭।
“ঐ দিনকে ভয় কর, যে দিন তোমরা আল্লাহর কাছে প্রত্যাবর্তিত হবে। অতঃপর প্রত্যেকেই তার কর্মের ফল পুরোপুরি পাবে এবং তাদের প্রতি কোন রূপ অবিচার করা হবে না।” সূরা আল-বাকারাঃ ২৮১।

“আল্লাহ ন্যায়পরায়ণতা, সদাচরণ এবং আত্নীয়-স্বজনকে দান করার আদেশ দেন এবং তিনি অশ্লীলতা, অসঙ্গত কাজ এবং অবাধ্যতা করতে বারণ করেন। তিনি তোমাদের উপদেশ দেন যাতে তোমরা স্মরণ রাখ।” সূরা আন-নূরঃ৯০।

“যে সৎকাজ করছে, সে নিজের কল্যাণার্থেই তা করছে, আর যে অসৎকাজ করছে, তা তার উপরই বর্তাবে। অতঃপর তোমরা তোমাদের পালনকর্তার দিকে প্রত্যাবর্তিত হবে।” সূরা আল জাসিয়াহঃ১৫।

“কিতাবে এই আছে যে, কোন ব্যক্তি কারও গোনাহ নিজে বহন করবে না।এবং মানুষ তাই পায়, যা সে করে,তার কর্ম শীঘ্রই দেখা হবে।অতঃপর তাকে পূর্ণ প্রতিদান দেয়া হবে।” সূরা আন-নাজমঃ ৩৮-৪১।

“অতঃপর সবাইকে সত্যিকার প্রভু আল্লাহর কাছে পৌঁছানো হবে। শুনে রাখ, ফয়সালা তাঁরই এবং তিনি দ্রুত হিসাব গ্রহণ করবেন।” সূরা আল-আনআমঃ৬২।

“অতঃপর কেউ অণু পরিমাণ সৎকর্ম করলে তা দেখতে পাবে এবং কেউ অণু পরিমাণ অসৎকর্ম করলে তাও দেখতে পাবে।” সূরা আজ-যালযালঃ ৭-৮।

খিলাফাহ প্রতিষ্ঠার জন্য মুসলিম মনের অনন্য দ্বায়িত্বানুভূতিই ইসলামের প্রারম্ভিককালের মুসলিমদেরকে সেই সময়ের সকল জাতি-গোষ্ঠির কাছে ভালোবাসা এবং ত্যাগের ঐতিহাসিক উদাহরন নজীর পেশ করতে সাহায্য করেছিলো। এই গুনটির কারনেই তৎকালীন মুসলিমরা লোভ, প্রতারনা, গর্ব থেকে মূক্ত ছিলো এবং সম্পদ আহোরন এবং মজুদ করার প্রতি তাদের অনীহা তাদের অন্য সবার থেকে পৃথক করেছিলো। যারা পার্থিব সম্পদ আহোরনে যত উৎসাহী ছিলো ঠিক ততটাই অনুৎসাহী ছিলো সম্পদ মজুদ করতে। কুরআন পাকে যাদের বর্ণনা করা হয়েছে তারা ছিলো তাদেরই মধ্যে।

“তারা আল্লাহর প্রেমে অভাবগ্রস্ত, এতীম ও বন্দীকে আহার্য দান করে।তারা বলেঃ কেবল আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্যে আমরা তোমাদেরকে আহার্য দান করি এবং তোমাদের কাছে কোন প্রতিদান ও কৃতজ্ঞতা কামনা করি না।” সূরা আল ইনসানঃ৮-৯।
একজন মুসলিম সত্য ও ন্যায়ের পথ থেকে বিচ্যুত হতে পারেনা কারন সে নিশ্চিত করে জানে যে, এই পৃথিবীতে তার মনের শান্তি এবং তার ভাগ্য নির্ভর করছে চেষ্টা, সাধনা এবং ত্যাগের প্রতি তার দ্বায়িত্ব এবং জীবনে ভালো কাজ করার উপর।
তাওহীদের উপর সঠিক বিশ্বাসে মুসলিমরা তাদের সঠিক পথ খুজে পাবে এবং সাফল্যমন্ডিত হবে। খলিফাহ হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করে মুসলিমরা সামনে অগ্রসর হবে এবং সাফল্যমন্ডিত হবে। সঠিক কর্মপদ্ধতির মাধ্যমে মুসলিমরা পজিটিভ এবং প্রোডাক্টিভ হবে।

আল্লাহ রাব্বুল আলামিন আমাদের ইসলামের সঠিক শিক্ষা ও সঠিক বুঝ দান করুন। সে অনুযায়ী আমল করার তৌফিক দান করুন। (আমীন)

2 Comments

Raba শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন জবাব বাতিল

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s